নির্বাচনের আদর্শ আচরণ বিধি ভেঙে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব এবং মন্ত্রীসভার সদস্য ফিরহাদ হাকিমকে নিয়ে ১মার্চ সাংবাদিক বৈঠক করেছেন। বুধবার এই অভিযোগ নিয়ে রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে সিপিআই(এম)। পার্টির পক্ষে রবীন দেব এই অভিযোগ জানিয়ে বলেছেন শাসক দল নির্বাচনের কাজে সরকারী দপ্তরকে ব্যবহার করে আদর্শ আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছে। এব্যাপারে নির্বাচনী অফিসারের হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দেওয়া এই অভিযোগের সঙ্গে দেব জানিয়েছেন, রাজ্যে বহু পুলিশ অফিসারকে কম্পালসারি ওয়েটিংয়ে পাঠিয়ে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসারদের দিয়ে শাসক দল কাজ করাচ্ছে। তাঁদের বেতনও দেওয়া হচ্ছে সরকারি কোষাগার থেকে। নির্বাচনের সময় শাসক দল নির্দিষ্টভাবে স্বার্থ রক্ষার জন্য এই অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসারদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে। এবিষয়ে নির্বাচনী অফিসারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। রাজ্য নির্বাচনী অফিসারকে লেখা এই অভিযোগ পত্রে আরও জানানো হয়েছে, দক্ষিণ ২৪পরগনা জেলার এক জেলা শাসককে সরকারি অফিসে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু শাসক দল নিজেদের স্বার্থরক্ষায় ওই জেলা শাসকের বাংলো এখনও পরিবর্তন করেনি। পুরানো বাংলো এখনও ওই অফিসার ব্যবহার করছেন। অভিযোগপত্রে জাননো হয়েছে রাজ্যে নির্বাচনী আচরণ বিধি লাগু হবার পরও বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সরানো হয়নি। নির্বাচনের সময় এই ধরনের প্রচার নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন করছে। পৃথক এক চিঠিতে সিপিআই(এম) বিধায়ক এবং রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী আনিসুর রহমানের ছবি ছাপিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া যে সংবাদ পরিবেশন করেছে তার প্রতিবাদ করে নির্বাচনী অফিসারের হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে ফৌজদারি মামলার আসামী বিজেপি নেতা আনিসুর রহমানের সংবাদের সঙ্গে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী আনিসুর রহমানের ছবি ছাপানো হয়েছে। ২০১৯ সালে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী কুরবান শাহ খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছিল আনিসুর রহমান। রাজ্য সরকার এখন তার বিরুদ্ধে থাকা ফৌজদারি মামলা তুলে নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া বুধবার এই সংবাদের সঙ্গে সিপিআই(এম) বিধায়ক আনিসুর রহমানের ছবি ছাপিয়ে তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেছে। এবিষয়ে নির্বাচন অফিসারের সক্রিয় হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে।

source- Ganashakti